এইমাত্র পাওয়া

সুবর্ণচরের ওয়াপদায় মেম্বারের সন্ত্রাসী হামলায় ২ জন আহত

স্টাফ রিপোর্টার : সুবর্ণচর উপজেলার ০৪ নং চর ওয়াপদা ইউনিয়নের ০৯ নং ওয়ার্ড় বর্তমান মেম্বারের সশস্ত্র সন্ত্রাসী হামলায় আহত ০৩ জন।

গত ২৭ শে আগস্ট রাত ৯টায় ভিকটিমদের আবাদী ফসলের ক্ষেত পরিকল্পিতভাবে ট্রাক্টর দ্বারা নষ্ট করে আবুল খায়ের মেম্বার গংয়ের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী বাহিনীরা। জমির মালিক বেলাল উদ্দিন বলেন, আমরা বাধা দিতে গেলে আমাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায় ইউনিয়ন বি এন পির সহ সভাপতি খায়ের মেম্বারের সন্ত্রাসী বাহিনী। ।হামলায় মো: দুলাল (৩৫),হাফেজ শাহেদুল ইসলাম (২৬) ও মো:শাহাদাত (২৪) গুরুতর আহত হয়।আহতদেরকে আশংকাজনক অবস্থায় চরজব্বর ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,বিএনপি নেতা আবুল খায়েরের নেতৃত্বে এলাকায় আওয়ামীলীগ সমর্থিত পরিবারের উপরে চলছে মাঝে মাঝে নির্যাতন।ভিকটিম বেলাল উদ্দিন আরো বলেন,এমনকি গত ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের দিন দিবাগত রাতে আওয়ামীলীগের কর্মীদের উপর সশস্ত্র হামলা চালায় খায়ের মেম্বার।ইউনিয়ন আ:লীগের সিনিয়র এক নেতা প্রতিবেদককে বলেন,ক্ষমতাধর এক ব্যক্তির ছত্রছায়ায় নিরাপদ আশ্রয়ে থেকে এই বিএনপি নেতা নানা অনিয়ম করে বেড়াচ্ছে।ইতিপূর্বে বধুগঞ্জ সংলগ্ন বেড়ীর উপরের সরকারী গাছ কাটা,আমানতগঞ্জের পূর্ব পাশে সিরাজের বাপের বাড়ীর দরজার কয়েকটি সরকারী গাছ কেটে নিজ বাড়ীতে ঘর নির্মাণ করা,একাধিক মসজিদের জমি নিজ নামে বন্দোবস্ত করাসহ নানা অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।নানা অভিযোগ থাকার পরেও ক্ষমতাবান ব্যক্তির আস্থাভাজন হওয়ায় একের পর এক অন্যায় করে পার পেয়ে যাচ্ছে এই বিএনপি নেতা।

প্রতিবেদক অভিযুক্ত খায়ের মেম্বারকে এই বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বিষয়টি সম্পূর্ণ অস্বীকার করেন এবং বলেন, এসব অভিযোগ মিথ্যা, বানোয়াট, উদ্দেশ্যে প্রণোদিত। তিনি আরো বলেন; আমি জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমার দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করছি। চর জব্বর থানার অফিসার ইনচার্জ নিজাম উদ্দিন উক্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। এই বিষয়ে কয়েকজনকে আসামী করে থানায় মামলা করা হয়েছে।

সুবর্ণচর (নোয়াখালী) প্রতিনিধি, দীর্ঘদিন থেকে সাংবাদিকতা পেশার সাথে জড়িয়ে আছেন। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশই তাঁর লক্ষ্য এবং এ বিষয়ে তিনি অনেক সচেতন।

সর্বশেষ তালাশ

অপরাধ জগত