এইমাত্র পাওয়া

সুবর্ণচরে মধ্যযুগীয় কায়দায় শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতন

স্টাফ রিপোর্ট:
মধ্যযুগীয় কায়দায় শিশু গৃহকর্মী ফারিয়া নির্যাতনের শিকার হয় ২নং চরবাটা ইউনিয়ন এর ৩ নং ওয়ার্ড এর হাজি মোস্তফা মিয়ার সহধর্মীনি কর্তৃক।

সূবর্ণচর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শহীদ সারওয়ার্দী সাহেবের বেয়াই,চরবাটা খাসের হাট বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সারের ডিলার আলহাজ্ব মোস্তফা মিয়ার পরিবার (স্ত্রী)র হাতে ৮/৯ বছরের শিশু গৃহকর্মীকে মধ্যযুগীয় কায়দায় অনেক দিন থেকে অমানবিক নির্যাতন ও নিপিড়ন করা হচ্ছে।পূর্বেও শিশু গৃহকর্মীকে অনেক বার নির্যাতনের রেকর্ড রয়েছে মিসেস মোস্তফার নামে। অসহায় মেয়েটির পুরো শরীরে নির্যাতনের দাগ আছে।গরম খুনতির ছেঁকা ও বেতের বারি মেয়েটির প্রত্যহ দিনের সঙ্গী। বার বার নির্যাতনের শিকার অসহায় শিশুটির বাবা মা কেউ নেই পৃথিবীতে। নিরুপায় হয়ে মেয়েটি অাজ বিকেলে ঘর থেকে পালিয়ে পার্শ্বস্ত দুলাল মিয়ার হাট বাজারে এসে বাঁচার অাকুতি জানায় সকলের কাছে।
মানুষ রুপি মোস্তফা মিয়ার পরিবার শিশু গৃহকর্মীকে কুকুরের মতো নির্যাতন করছে।
সমাজের উঁচু শ্রেণীর বাসিন্দা বলে কি তাদের বিরুদ্ধে অাইনও দূর্বল?
বিচারের বাণী কি নিভৃতে কাঁদবে?
অসহায়ের অার্তনাদ কি অামাদের বিবেককে নাড়া দিবে না?

সবশেষে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি ও প্রশাসনের সকল শ্রেণীর মানুষদের প্রতি অনুরোধ রইলো পিতামাতা ও পরিবার হারা নির্যাতিত এই শিশুকে মানুষ রুপি শয়তানদের(মোস্তফা মিয়ার বউ ও পরিবার)র হাত থেকে রক্ষা করুন এবং শিশুটিকে প্রাণে বাঁচতে সহায়তা করুন। মোস্তফা মিয়া বিষয়টি অস্বীকার করেন।

সুবর্ণচর (নোয়াখালী) প্রতিনিধি, দীর্ঘদিন থেকে সাংবাদিকতা পেশার সাথে জড়িয়ে আছেন। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশই তাঁর লক্ষ্য এবং এ বিষয়ে তিনি অনেক সচেতন।

সর্বশেষ তালাশ

অপরাধ জগত