বগুড়ায় শিক্ষক-ছাত্রীর ভিডিও তোলপাড়, এএসপি’র আশ্বাসে অবরোধ প্রত্যাহার

এম নজরুল ইসলাম, বগুড়া:
পরীক্ষায় ফেল করানোর ভয় দেখিয়ে ছাত্রীর সাথে শিক্ষকের অনৈতিক মেলামেশার ভিডিও ফুটেজ ও রেকর্ডিং ফেসবুকসহ অনলাইনে ফাঁস ঘটনায় বগুড়ার চাঁদমুহা সরলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে তোলপাড় চলছে। অভিযুক্ত শিক্ষক বাবুর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে শিক্ষাথী। বিদ্যালয়ের সামনে নামুজা-বগুড়া সড়ক অবরোধ করে। শিক্ষক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক, স্বেচ্ছাসেবী ও নারীবাদী বিভিন্ন সংগঠনসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ এতে অংশ নেন। রোববার (৮ এপ্রিল) দুপুরে বগুড়া সদর উপজেলার গোকুল ইউনিয়নের চাঁদমুহা সরলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে এঘটনা ঘটে। এখবর পেয়ে বিদ্যালয়ে ছুটে যান বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী। তিনি অভিযুক্ত শিক্ষকের দ্রæত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা অবরোধ তুলে নেয়।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ১০ম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে পরীক্ষায় ফেল করানোর ভয় দেখিয়ে দীর্ঘ ২ বছর পূর্বে দৌহিক সম্পর্ক গড়ে তুলে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বগুড়া সদরের রজাকপুর গ্রামের সোলায়মান আলীর ছেলে ফারুক হোসেন বাব। ছাত্রীর সাথে অনৈতিক মেলামেশার ভিডিও গোপনে মোবাইলে ধারণ করে রাখে লম্পট শিক্ষক বাবু। সম্প্রতি ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ অনলাইনে প্রকাশ পেলে তোলপাড় শুরু হয়। বিক্ষোভ প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ করে শিক্ষার্থীরা। লম্পট শিক্ষককে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে অনড় শিক্ষার্থীদের কাছে ছুটে যান বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী। তার আশ্বাসে উত্তপ্ত পরিস্থিতি শান্ত হয়। ওইদিনই অভিযুক্ত শিক্ষকের ভায়রা একই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবু বক্কর সিদ্দিককে গ্রেফতার করে পুলিশ। এসময় এএসপির সঙ্গে ছিলেন, বগুড়া সদর থানার ওসি এমদাদ হোসেন, ওসি (তদন্ত) কামরুজ্জামান মিয়া ও গোকুল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সওকাদুল ইসলাম সরকার সবুজ।
বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আলী রেজা তোতন ও প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলাম জানান, অভিযুক্ত শিক্ষক বাবুকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
মঙ্গলবার বিকেলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী জানান, এঘটনায় বগুড়া সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষক বাবুকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলেও জানান জেলা পুলিশের এই কর্মকর্তা।

এম. নজরুল ইসলাম

এম. নজরুল ইসলাম

বগুড়া জেলা প্রতিনিধি, দীর্ঘদিন থেকে সাংবাদিকতা পেশার সাথে জড়িয়ে আছেন। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশই তাঁর লক্ষ্য এবং এ বিষয়ে তিনি অনেক সচেতন।

সর্বশেষ তালাশ

অপরাধ জগত