অবৈধ্য নছিমনে অভিনব কায়দায় লুকিয়ে রাখা ৬৯৪ বোতল মরন নাশক মাদকদ্রব্য ফেনসিডিল উদ্ধার।

সরদার কালাম কলারোয়া সাতক্ষীরা :
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় অবৈধ্য ইঞ্জিনচালিত নছিমনে অভিনব কায়দায় লুকিয়ে রাখা ৬৯৪ বোতল মরন নাশক মাদকদ্রব্য ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে পুলিশ। ১১ এপ্রিল বুধবার ভোর ৬টার দিকে উপজেলার কাদপুর গ্রাম থেকে সেগুলো উদ্ধার করে থানা পুলিশ ।থানা সূত্র জানায়- গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার ভোরে উপজেলা চন্দনপুর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী কাদপুর গ্রামের দক্ষিনপাড়ার একটি রাস্তায় একটি ইঞ্জিনচালিত নছিমনকে চ্যালেঞ্জ করে।

পুলিশের উপস্থিত টের পেয়ে নছিমন চালক ও অপর আরেক ব্যক্তি পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ নছিমনটি জব্দ করে। নছিমনে যাত্রীদের বসার স্থানের নিচে অভিনব কায়দায় বিশেষ ভাবে লুকিয়ে রাখা ৬৯৪ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার হয়। নছিমনসহ ফেনসিডিলের আনুমানিক মূল্য ৩লাখ ৯৭হাজার টাকা। সূত্র আরো জানায়- ফেনসিডিলের মালিক চন্দনপুর ইউনিয়নের হিজলদী দক্ষিণপাড়া গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলীর পুত্র আজগর আলী (৪৮)। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আজগর ও নছিমন চালক পালিয়ে যায়। প্রাথমিক পর্যায়ে নছিমন চালকের নাম জানা যায়নি। থানার ওসি বিপ্লব দেব নাথের নির্দেশনায় সেকেন্ড অফিসার এসআই আমিনুল ইসলাম, এএসআই শাহীনুর ইসলাম, এএসআই নূর আলী, এএসআই মিলন হোসেন, এএসআই রাসেল রানাসহ সঙ্গীয় ফোর্স অভিযান পরিচালনা করেন।

এ ব্যাপারে আজগর আলী ও অজ্ঞাত নছিমন চালককে আসামি করে কলারোয়া থানায় মামলা (২১) হয়েছে।কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বিপ্লব দেবনাথ সাংবাদিকদের জানান- ‘থানা পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে ৬৯৪ বোতল ফেনসিডিল ও ফেনসিডিলবাহী নছিমন উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশের উপস্থিত টের পেয়ে নছিমন ফেলে পালিয়ে যায় চালক ও ফেনসিডিলের মালিক। তাদেরকে আটকের জোর চেষ্টা চলছে।কলারোয়ায় মাদক, মাদক ব্যবসায়ী ও মাদকসেবীদের কোন ছাড় নেই’- বলেন ওসি বিপ্লব দেব নাথ।

কালাম সর্দার

কালাম সর্দার

কলারোয়া (সাতক্ষিরা ) প্রতিনিধি, দীর্ঘদিন থেকে সাংবাদিকতা পেশার সাথে জড়িয়ে আছেন। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশই তাঁর লক্ষ্য এবং এ বিষয়ে তিনি অনেক সচেতন।

সর্বশেষ তালাশ

অপরাধ জগত